মানুষ’র জীবন ও সৃষ্টির রহস্য

CAMBIOS PLANETA
Share Button

আল্লাহ তায়লা যখন মানুষ সৃষ্টি করার ইচ্ছা পোষন করলেন । তখন তিনি ফিরিস্তাদের সাথে আলাপ করেন এবং তাদের কে বলেন যে, আমি পৃথিবীতে তাকে প্রতিনিধি হিসেবে পাঠাবো। তখন তারা বলে যে, আপনি কি সেখানে এমন কাউকে সৃষ্টি করতে চাচ্ছেন যারা পূবের জীন জাতির মত মারামারি, কাটাকাটি, খুন জখমের মত ভয়ানক কাজ করবে। তখন আল্লাহ তাদের উত্তরে বলেন নিশ্চয় আমি যাহা জানি তোমরা তাহা জানো না । (সুরা আল বাকারা)।

মানুষ সৃষ্টির লক্ষ্যে আল্লাহ তায়লা মানুষের সেবার জন্য তিনি চিন্তা করলেন আরো অন্যান্য প্রাণির মধ্যে বলদ/গরু কে সৃষ্টি করবেন এবং তাকে বললেন যে, তোমাকে মানুষ সেবার জন্য সৃষ্টি করা হয়েছে । তখন বলদ বলল আমাকে সেখানে তাদের কে কি ভাবে সেবা করতে হবে এবং কতদিন পৃথিবীতে অবস্থান করতে হবে। তখন আল্লাহ তাদের উত্তরে বলেন, তোমার কাজ থাকবে হাল চাষ করা এবং তুমি যথন বুড়ো হয়ে যাবে তখন তোমাকে তারা জবাই করে খাবে । আর তোমার গড় আয়ু থাকবে ৪০ বছর । তখন বলদ প্রার্থনা করল যে,আমার এতদিন এ ভাবে থাকা সম্ভব হবে না । আপনি আমার হায়াত আরো কমিয়ে দেন। তখন আল্লাহ এ ভাবে তার হায়াত ২০ বছর ঠিক করল মানুষ সেবার জন্য ।

এর পর আল্লাহ তায়লা কুকুর সৃষ্টি করলেন এবং তাকে বললেন যে, তোমাকে মানুষ সেবার জন্য সৃষ্টি করা হয়েছে । তখন কুকুর বলল আমাকে সেখানে তাদের কে কি ভাবে সেবা করতে হবে এবং কতদিন পৃথিবীতে অবস্থান করতে হবে। তখন আল্লাহ তাদের উত্তরে বলেন, তোমার কাজ থাকবে সেখানে গিযে মানুষের বাড়ি পাহারা দেয়া এবং তোমার থাবার থাকবে তারা যে সব খেয়ে যেসব ঝুটা থাকবে সেগুলো । আর এভাবে তোমাকে ৪০ বছর থাকতে হবে। তখন কুকুর আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করল যে, আমার দ্বারা এভাবে এতদিন থাকা সম্ভব নয়। আমার হায়াত কমিয়ে দিন। এভাবে করে কুকুর এর হায়াত ২০ বছরে এসে পৌছালো।

এর পর আল্লাহ পেচা সৃষ্টি করলেন এবং তাকে বললেন যে, তোমাকে মানুষ সেবার জন্য সৃষ্টি করা হয়েছে । তখন পেচা বলল আমাকে সেখানে তাদের কে কি ভাবে সেবা করতে হবে এবং কতদিন পৃথিবীতে অবস্থান করতে হবে। তখন আল্লাহ তাদের উত্তরে বলেন, তোমার কাজ থাকবে সেখানে গিযে তুমি গাছের গর্তের মধ্যে বাস করবে এবং রাতে আমার বান্দাদের ডাকবে এবং আমার জিকিরের কথা স্মরন করিয়ে দেবে। আর তুমি সেখানে থাকবে ৪০ বছর । তখন পেচা আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করল যে, আমার দ্বারা এভাবে এতদিন থাকা সম্ভব নয়। আমার হায়াত কমিয়ে দিন। এভাবে করে পেচা এর হায়াত ২০ বছরে এসে পৌছালো।

এরপর আল্লাহ আদম কে সৃষ্টি করলেন এবং বললেন তোমাকে আমি পৃথিবীর প্রতিনিধি হিসেবে সৃষ্টি করেছি এবং তোমাকে সেখানে থাকতে হবে এবং আমার ইবাদত করতে হবে । আর তোমার হায়াত থাকবে ৪০ বছর । তখন আদম তার প্রতি উত্তরে বললেন, যে, হে মাবুদ এইটুকু হায়াত দিয়ে তো আমার পৃথিবীতে যেতে আর আসতে সময় শেষ হয়ে যাবে । আমার আরো হায়াত বাড়িয়ে দিন। তখন আল্লাহ বলদ, কুকুর ও পেচা এর হায়াত ২০+২০+২০= ৬০ যুক্ত করে এবং আদমের হায়াত ৪০ যুক্ত করে ১০০ বছর করেন।

এতে প্রতিয়মান হয় যে, মানুষ আল্লাহর দেয়া হায়াত ৪০ বছরে খুব সুন্দর জীবন যাপন করে। আর বলদ এর হায়াত যখন এসে যায় তখন মানুষের ছেলে মেয়ে সন্তান হয় তখন মানুষ কে বলদের মত খাটতে হয়। আর যখন ৬০ বছর অতিক্রম হয় তখন মানুষকে কুকুর মত বাড়ি পাহারা দেয়া ছাড়া অন্য কোন উপায় থাকে না। আর যখন ৮০ বছর অতিক্রম হয় তখন পেচার মত ঘরে বসে আল্লাহর ইবাদতে মশগুল থাকতে হয়।

বিঃদ্রঃ এই লেখাটি আমি আকাশ/ অনলাইন থেকে পেয়েছি। তবে এর ব্যখ্যা সহ সত্যতা কতটুকু তা আমি বলতে পারবো না। আর এ ভূরের জন্য আল্লাহ যেন আমাদের সবাইকে মাফ করেন। (আমিন)






Related News

joy-bangla

“জয় বাংলা” একটি শ্লোগান, একটি দেশ

Share Button

বাংলা ফটো নিউজ : আমাদের মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া বাজারের দোকানে বাবা ফিলিপস রেডিও বাজাতেন। অনেক বড়Read More

CAMBIOS PLANETA

মানুষ’র জীবন ও সৃষ্টির রহস্য

Share Button

আল্লাহ তায়লা যখন মানুষ সৃষ্টি করার ইচ্ছা পোষন করলেন । তখন তিনি ফিরিস্তাদের সাথে আলাপRead More

  • বেঈমান হতে চাই ঈমানদার বেঈমান
  • মুজিব কোর্ট
  • ঐশীর ফাঁসিই শেষ কথা নয়!
  • ইন্টারনেটের কানা-গলি
  • কিভাবে চিনবেন ক্ষতিকারক ওষুধ খাওয়ানো মোটাতাজা গরু ?
  • শর্তের বেড়াজালে প্রত্যাশিত ভারতীয় ঋণ
  • সাভার ব্যাংক কলোনির প্রতারক পান্নুর খুটির জোর কোথায় ?
  • রমজানে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি করা অনৈতিক