\ বাংলাদেশের অর্থনীতিতে পোষাক শিল্পের অবদান রয়েছে | Bangla Photo News
Thursday , August 22 2019
Homeলীড নিউজবাংলাদেশের অর্থনীতিতে পোষাক শিল্পের অবদান রয়েছে
বাংলাদেশের অর্থনীতিতে পোষাক শিল্পের অবদান রয়েছে

বাংলাদেশের অর্থনীতিতে পোষাক শিল্পের অবদান রয়েছে

  1. বাংলাদেশের অর্থনীতিতে স্থানীয় বাজারের পোষাক শিল্পের অবদান রয়েছে
বাংলাদেশ লেবার ফাউন্ডেশন (বিএলএফ) বাংলাদেশের শ্রমিক ও শ্রমজীবী মানুষের কল্যাণে দীর্ঘদিন যাবত কাজ করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ক্ষুদ্র গার্মেন্টস শ্রমিকদের সক্ষমতা, দক্ষতা, সচেতনতা বৃদ্ধি এবং পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা উন্নয়নে বিএলএফ কাজ করছে।
বাংলাদেশ লেবার ফাউন্ডেশন (বিএলএফ) এর আয়োজনে আজ ২৩ এপ্রিল ২০১৯ মঙ্গলবার কেরাণীগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে “বাংলাদেশের স্থানীয় তৈরী পোষাক কারখানায় শোভন কাজের পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য, কর্ম ক্ষেত্রে শ্রমিকদের দক্ষতা বৃদ্ধি কার্যক্রম” শীর্ষক প্রকল্পের ইনসেপশন সভার আয়োজন করা হয়।
উক্ত ইনসেপশন সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ লোবার ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারি জেনারেল জেড এম কামরুল আনাম এবং প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সহকারী কমিশনার (ভূমি) প্রমথ রঞ্জন ঘটক। অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে কেরানীগাঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার মাজেদা সুলতানা, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মাহমুদা মান্না, ফায়ার সার্ভিসের উপজেলা স্টেশন অফিসার মো: হাবিবসহ বিভিন্ন এনজিও, গণমাধ্যম প্রতিনিধি ও বিএলএফ এর প্রতিনিধিবৃন্দ উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকারীর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কেরানীগঞ্জ ক্ষুদ্র গার্মেন্টস শ্রমিক কল্যাণ ইউনিয়নের সভাপতি জাকির হোসেন পান্নু এবং সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনির হোসেন মৃধা। আাগানগর ক্ষুদ্র গার্মেন্টস শ্রমিক কল্যাণ ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ সুমন, এবং সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ হায়দার এবং চরকালীগঞ্জ ক্ষুদ্র গার্মেন্টস শ্রমিক কল্যাণ ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান মাহমুদ রানা এবং সভাপতি আলি আহেদ আলামিন। মালিক সমিতির পক্ষে উপস্থিত ছিলেন তানাকা মার্কেট মালিক সমিতির সেক্রেটারী মোঃ আজহার উদ্দীনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
উক্ত অনুষ্ঠানে তৈরী ক্ষুদ্র পোষাক কারখানার উপর একটি ভিডিও ডক্যুমেন্টারী প্রদর্শন করা হয়। এরপর প্রকল্পের একটি সংক্ষিপ্ত পাওয়ারপয়েন্ট উপস্থাপন করেন বিএলএফ প্রোগ্রাম প্রধান এ, কে, এম মাহাতাব ঊদ্দীন। এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য হলো স্থানীয় তৈরী পেষাক শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়নগুলোকে সক্ষম করে তোলা যাতে তারা সামাজিক সংলাপের মাধ্যমে শ্রমিকদের অধিকার আদায় করতে পারে; কেরাণীগঞ্জে  তৈরী পোষাক কারখানায় শিশু শ্রম দূর করা; স্থানীয় তৈরী পোষাক শিল্প সরকারের আরো নজরে এনে এই শিল্পের সরকারী স্বীকৃতি অর্জন; জে-ারভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধ এই উদ্দেশ্যেগুলো অর্জনের জন্য বিভিন্ন প্রশিক্ষণ, স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে এডভোকেসি, গণযোগাযযোগ ও প্রচারণামূলক বিভিন্ন কার্যক্রমের পরিকল্পনা করা হয়েছে।
প্রকল্পের সংক্ষিপÍ উপস্থাপন শেষে অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্য প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান অর্থনীতির অগ্রগতিতে তৈরী পোষাক শিল্পের সবচেয়ে বড় অবদান রয়েছে। তিনি আরো বলেন, স্থানীয় তৈরী পোষাক ও এতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। তাই এই খাতকে সহায়তা প্রদান করা প্রয়োজন। তিনি উপস্থাপিত প্রকল্পের সাফল্য কামানা করেন ও সহযোগিতা প্রদানে আশ্বাস প্রদান করেন।
সভার সভাপতি জনাব জেড এম কামরুল আনাম সভার সমাপনি বক্তব্যে উপস্থিত অংশগ্রহণকারী ও প্রকল্পের স্টেক হেল্ডারদের প্রকল্পের বিভিন্ন কার্যক্রমে সহযোগিতা প্রদানের অনুরোধ জানান এবং উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*