\ ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত নারী ফুটবল দলের দুই সদস্য | Bangla Photo News
Thursday , July 18 2019
Homeখেলাধুলাডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত নারী ফুটবল দলের দুই সদস্য
ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত নারী ফুটবল দলের দুই সদস্য

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত নারী ফুটবল দলের দুই সদস্য

বাংলা ফটো নিউজ : ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ নারী ফুটবল দলের দুই সদস্য মার্জিয়া আক্তার ও সাজেদা খাতুন ।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে জানা যায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন এ দুই ফুটবলার।

তাদের শরীরে ডেঙ্গু পজেটিভ রয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের উপ-পরিচালক লক্ষ্মী নারায়ণ মজুমদার।

তবে ভয়ের কোনো কারণ নেই বলে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, আজ আমাদের হাতে ঢাকার ডায়াগোনেস্টিকে করা এই দুই ফুটবলারের মেডিকেল টেস্ট রিপোর্ট এসে পৌঁছায়। সেখানে দেখা যাচ্ছে তাদের শরীরে ডেঙ্গু পজেটিভ রয়েছে। এরপর আমাদের এখানেও সকল ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানো হয়েছে। একই রিপোর্ট পেয়েছি আমরা।

বর্তমানে হাসপাতালের ১১ নম্বর ওয়ার্ডে তাদের ভর্তি করে চিকিৎসা করা হচ্ছে বলে জানান লক্ষ্মী নারায়ণ মজুমদার।

জানা গেছে, গত ২ জুলাই জ্বরে আক্রান্ত হন ফুটবলকন্যা মার্জিয়া আক্তার ও সাজেদা খাতুন। ৪ জুলাই নারী ফুটবল দলের গোলাম রব্বানী ঢাকার একটি ডায়াগোনেস্টিকে এ দুই ফুটবলারের রক্ত পরীক্ষা করতে পাঠান।

তবে জ্বরের মাত্রা আরও বাড়লে ওই টেস্টের রিপোর্টের অপেক্ষা না করেই গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের কলসিন্দুরে চলে আসেন তারা।

এদিকে সোমবার (৮ জুলাই) রাতে মোবাইল ফোনে তাদের জানানো হয়, ওই রিপোর্ট দেখে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন যে, তাদের রক্তে ডেঙ্গুর জীবাণু রয়েছে।

এ খবরের পরদিনই (মঙ্গলবার) বেলা ১১টার দিকে দুইজনই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন।

কলসিন্দুর নারী ফুটবল দলের ম্যানেজার মালা রানী সরকার বলেন, সোমবার রাতে ফুটবলার সাজেদার মা আমাকে বিষয়টি জানায়। পরে আমি ধোবাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে কথা বলে দুজনকেই হাসপাতালে ভর্তি করি। এখানকার চিকিৎসকরা অনেকগুলো পরীক্ষা (টেস্ট) দিয়েছেন। সেগুলো করতে দেয়া হয়েছে। এখনও রিপোর্ট হাতে পাইনি।

ফুটবল ফেডারেশনের পক্ষ থেকে সব সময় মার্জিয়া ও সাজেদার শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় নারী ফুটবল দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*