\ আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার শেষ সময়ে ছাড়-অফারের হিড়িক | Bangla Photo News
Sunday , September 27 2020
Homeলীড নিউজআন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার শেষ সময়ে ছাড়-অফারের হিড়িক
আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার শেষ সময়ে ছাড়-অফারের হিড়িক

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার শেষ সময়ে ছাড়-অফারের হিড়িক

বাংলা ফটো নিউজ : ২৫তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শেষ হতে আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। বিদায়ের ঘনঘটায় ক্রেতা-দশনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত মেলা প্রাঙ্গণ। শেষ মুহূর্তে বিক্রি বাড়াতে ছাড়-অফার বাড়িয়েছে স্টলগুলো।

ক্রেতাদের আকর্ষণে বিভিন্ন পণ্যে বিশেষ মূল্যছাড় দিচ্ছেন বিক্রেতারা। পণ্য ভেদে ১০ থেকে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত নগদ মূল্যছাড়ের পাশাপাশি বিভিন্ন অফার দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। একটি কিনলে একটি ফ্রিসহ রয়েছে ‘রাজকীয়’, ‘গোল্ডেন’ ও ‘ফাটাফাটি’ অফার। সব মিলিয়ে অফার আর ছাড়ের ছড়াছড়ি চলছে এখন বাণিজ্য মেলায়। বিভিন্ন ছাড়ে পণ্য কিনতে ভিড় করছেন ক্রেতা-দর্শনার্থীরা। আশানুরূপ ক্রেতা পেয়ে খুশি স্টলের মালিকরা। সোমবার ২৭তম দিন মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা গেছে এমন চিত্র।

মেলায় সবচেয়ে বেশি আগ্রহ দেখা গেছে স্টিল, অ্যালোমিনিয়াম ও প্লাস্টিকের তৈরি গৃহস্থালি সব জিনিসপত্র নানা ধরনের ইলেক্ট্রনিক পণ্য কুকার, জুস মেকার, জুস ব্লেন্ডার, ওভেন, রাইস কুকারসহ ঘর সাজানোর সামগ্রীসহ ফ্যাশেনেবল পোশাক ব্লেজার ও খাদ্যপণ্যে।

মেলায় ‘বেস্ট বাই’ এর প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন থেকে পণ্য কিনলে ক্রেতারা পাচ্ছেন ৩০ শতাংশ পর্যন্ত মূল্য ছাড়। এছাড়া ৩ হাজার টাকার ফার্নিচার কিনলে ঢাকার ভেতরে হোম ডেলিভারি ফ্রি।

আকর্ষণীয় ডিজাইনের নতুন নতুন বাহারি সব পণ্য নিয়ে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় হাজির হয়েছে দেশের জনপ্রিয় মেলামাইন ব্র্যান্ড ইটালিয়ানো। মেলা উপলক্ষে ইটালিয়ানো দিচ্ছে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত নগদ মূল্যছাড়। সেই সঙ্গে রয়েছে ৫০০ টাকার পণ্য কিনে থাইল্যান্ড, নেপাল ও কক্সবাজার ভ্রমণের সুবর্ণ সুযোগ। মেলার ৫২ নম্বর প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নে পাওয়া যাচ্ছে ইটালিয়ানোর এসব অফার।

বরাবরের মতো এবারও বছরের প্রথম দিন ১ জানুয়ারি শুরু হয় বাণিজ্য মেলা। মাসব্যাপী এ বাণিজ্য মেলা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য খোলা থাকবে। টিকিটের দাম এ বছর প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য ৪০ টাকা এবং অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য ২০ টাকা।

এবারের মেলায় স্টল/প্যাভিলিয়নের সংখ্যা ৪৮৩টি। এর মধ্যে বিভিন্ন ক্যাটাগরির প্যাভিলিয়নের সংখ্যা ১১২টি, মিনি প্যাভিলিয়নের সংখ্যা ১২৮টি এবং বিভিন্ন ক্যাটাগরির স্টলের সংখ্যা ২৪৩টি। এর মধ্যে বিদেশি প্যাভিলিয়ন ২৭টি, বিদেশি মিনি প্যাভিলিয়ন ১১টি এবং বিদেশি প্রিমিয়ার স্টলের সংখ্যা ১৭টি।

এবারের মেলায় বাংলাদেশের পাশাপাশি থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্ক, নেপাল, চীন, মালয়েশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, দক্ষিণ কোরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, ভুটান, ব্রুনাই, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইতালি ও তাইওয়ানের প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*