\ জান্নাতি খেজুর ‘আজওয়া’তে রোগের প্রতিষেধক | Bangla Photo News
Friday , May 29 2020
Homeমুক্তমতজান্নাতি খেজুর ‘আজওয়া’তে রোগের প্রতিষেধক
জান্নাতি খেজুর ‘আজওয়া’তে রোগের প্রতিষেধক

জান্নাতি খেজুর ‘আজওয়া’তে রোগের প্রতিষেধক

ছোট ছোট খেজুর। ওপরে কালো রঙের আস্তরণ। দেখতে অনেকটা জামের মতো। কিন্তু অত্যন্ত সুস্বাদু ও মানসম্পন্ন। আজওয়া নামের এ খেজুর মদিনার উত্কৃষ্টতম খেজুর। পবিত্র হাদিস শরিফে খেজুরটির গুরুত্ব বর্ণনা করা হয়েছে। জান্নাতের ফল বলে আখ্যা দেওয়া হয়েছে।

আবু হুরাইরা (রা.) বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘আজওয়া জান্নাতের, এতে বিষক্রিয়ার প্রতিষেধক রয়েছে…।’ (তিরমিজি, হাদিস নং: ২০৬৬)

আজওয়া খেজুর রাসুল (সা.)-এর প্রিয় ফল ছিল। আজওয়ার উপকারিতা ও গুরুত্ব অপরিসীম। রাসুল (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি প্রতিদিন সকালবেলা সাতটি আজওয়া (উত্কৃষ্ট) খেজুর খাবে, সেদিন কোনো বিষ ও জাদু তার ক্ষতি করবে না।’ (বুখারি, হাদিস নং: ৫৪৪৫)

এটি হৃদরোগে আক্রান্তদের জন্য মহা উপকারী। হাদিসের বর্ণনায় এটা বোঝা যায়। রাসুল (সা.) তার এক সাহাবিকে হৃদরোগের জন্য আজওয়া খেজুরের তৈরি ওষুধ খেতে পরামর্শ দিয়েছেন।

সাদ (রা.) বর্ণনা করেন, একবার আমি অসুস্থ হলে রাসুল (সা.) আমাকে দেখতে আসেন। এ সময় তিনি তার হাত আমার বুকের ওপর রাখেন। আমি তার শীতলতা আমার হৃদয়ে অনুভব করি। এরপর তিনি বলেন, তুমি হৃদরোগে আক্রান্ত। কাজেই তুমি সাকিফ গোত্রের অধিবাসী হারিসা ইবনে কালদার কাছে যাও। কেননা সে একজন অভিজ্ঞ চিকিৎসক। আর সে যেন মদিনার আজওয়া খেজুরের সাতটা খেজুর নিয়ে বিচিসহ চূর্ণ করে তোমার জন্য তা দিয়ে সাতটি বড়ি তৈরি করে দেয়।’ (আবু দাউদ, হাদিস নং : ৩৮৩৫)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*